বিপিয়া টিউটোর - এসো শিখি সহজ করে

বাংলা ভাষায় প্রযুক্তি সহজে উপস্থাপনের নিমিত্তে আমাদের এই ছোট্ট প্রয়াস।

🔍 কি খুঁজছেন!

ভিডিওগ্রাফি ও তার পরিচিতি !


খনকার দিনে মানুষ এতটাই প্রযুক্তি নির্ভর যে, বইয়ের পাতার স্থির অক্ষরগুলো পড়তে সবার মন করে না । যদি এর ব্যাখ্যা ভিডিও ফুটেজ আকারে দেখতে পারতাম তাহলে কত সহজেই না বুঝা যেতো ? মিথ্যা কিন্তু নয় ! কোন জিনিস চাক্ষুস দর্শনে বুঝে শুনে দেখাটাই দ্রুত আয়ত্বের বড় অংশীদার । এতে আমাদের ব্রেইন সরাসরি ভিডিও পর্দার অস্থির (স্থির নয়) পর্দার উপর নিবেশিত হয় । কারণ, একটি ভিডিওর পর্দা যেমন আমাদের চোখের দৃষ্টি আকর্ষন করে তেমনি ভিডিওর শব্দ আমাদের শ্রবণেন্দ্রিয় কর্ণকেও মনোযোগে প্রযোজিত করে । এখন আলোচনায় আসি ভিডিও বা "অস্থির চিত্র" মানে কি ?
ছবি (Picture) :
ছবিঃ কারা বুল্লক আর্ট 

একটি ছবি (Picture) মানে একটি স্থির গ্রাফিক্স । যেটি কখনো নড়বে না । আপনি যে কোন মুহূর্তেই ছবিটির দিকে তাকাননা কেন, ছবিটি আপনাকে চেয়েই যাবে । ছবিটি দেয়ালে যতদিন থাকবে আপনি মরে গেলেও আপনার উত্তরসূরি নাতি পতির দিকে সেই এক অবাক লোকনে চেয়েই রবে । চাইলেও চোখের আড়াল হতে পারবেন না । না এতে অবাক হওয়ার কিছু নেই । এটা আমরা সবাই জানি ।

শব্দ তরঙ্গ (Sound):

একটি মিউজিক (Music) বা সাউন্ড (Sound) মানে দৃশ্যহীন একটি সুরের মূর্ছনা (The Music of silence) । এই অদৃশ্যমান অনুভূতি আপনাকে হাঁসাবে কাঁদাবে , আপনাকে বিশ্রাম দিবে এমন কি আপনার অবচেতন (Unconsciousness) করে তোলবে । আমাদের প্রাত্যহিক জীবনে এই "শব্দ" শব্দটি ওতপ্রোত ভাবে জড়িত । শব্দহীনতা একজন মানুষের বিকলাঙ্গতা (Sound Disorder) ।



ভিডিও চিত্র (Videography) :
চিত্রঃ আধুনিক ভিডিও চিত্র (Credit : ViralBlog)
উপরের দুটি পয়েন্টকে দেখুন । দুটি পয়েন্টই একটি স্বতন্ত্রতা (Individuality) রয়েছে । অর্থাৎ, একটি হল নির্বাক এবং অন্যটি সবাক । সম্পর্কের দিক বিবেচনা করলে বলা যায় শব্দ এবং ছবি দুটি দুই-মেরুর অর্থ বহন করে । এই দুটি পয়েন্টকে এক করার জন্য যে মাধ্যম (Medium) প্রচলিত সেটাই ভিডিওচিত্র । আরো একটু পরিষ্কারের করি ।
আমরা জানি গ্রাফিক্সের মূল অর্থই হল, স্থির চিত্র । আর অনেকগুলো স্থির চিত্র মিলেই একটি বায়স্কোপ (Moving Picture) [যা স্থির নয়] । এবং তার সাথে শব্দ সহযোগে তৈরী হয় একটি পূর্ণাঙ্গ ভিডিওচিত্র । ভিডিওচিত্র ক্যামেরায় ধারণ করা হয় । একটি সাধারণ মানসমপন্ন (Standard) ক্যামেরা প্রতি সেকেন্ডে সর্বোচ্চ ৩০টি ছবি ধারণ করতে পারে । ভিডিওর ভাষায় প্রতি সেকেন্ডের প্রতিটি ছবিকে ফ্রেম (Frame) বলে । এক সেকেন্ডে ক্যামেরা যতগুলো ফ্রেম ধারণ (Capture) করতে পারে তাকে বলে ফ্রেম রেট (Frame Rate) এবং প্রতি সেকেন্ডের ফ্রেমকে সংক্ষেপে fps (Frame Per Second) বলে । একটি ভিডিওর সম্পদ (Properties) এ গেলেই আপনি ভিডিওটির ফ্রেম সংখ্যা দেখতে পাবেন । নিচের ছবিতে লক্ষ্য করুন ।
চিত্রঃ ভিডিও প্রোপার্টিজ্‌
তাহলে আমরা আরেকটি জিনিস বুঝলাম যে, একটি ভিডিও মানে অনেকগুলো ছবি (Frames) এবং শব্দ সহযোগে সৃষ্ট মাধ্যম । যা আমাদের একই সাথে দেখতে এবং শুনতে দেয় । কম্পিউটার গ্রাফিক্সে ভিডিওকে অনেক চমকপ্রদ ভাবে উপস্থাপন করা যায় । যা আমাদের বিনোদন এবং শিক্ষায় অনেক অগ্রগণ্য ভূমিকা পালন করছে ।

ভিডিও আকার (Size) :
চিত্রঃ একটি ভিডিওর সাইজ
ভিডিও একটি পর্দার উপর আপতিত হয় এবং আমরা সেই পর্দাকেই অবলোকন করি । যেহেতু একটি পর্দার প্রতিচ্ছবিতে আমরা ভিডিওটি দেখি তাই বলা যায় ভিডিওর একটি উচ্চতা এবং একটি প্রশস্থতা আছে । ঠিক তাই । তার এই উচ্চতা বা প্রশস্ততার একক পিক্সেল (Pixel) । মনিটরের পর্দার ক্ষুদ্র একক ঘরকে পিক্সেল বলে । এই পিক্সেল চতুর্ভূজ আকারের । অর্থাৎ, চারটি সমান বাহু দিয়ে পিক্সেল গঠিত । তাহলে এটাও বুঝা যায় যে, অনেকগুলো চতুর্ভূজের সমন্বয়ে একটি মনিটরের পর্দা । উলম্ব (Vertical) এবং অনুভূমিক (Horizontal) বরাবর মোট যতগুলো পিক্সেল বিদ্যমান সেগুলোর মোট হিসাবই হল , একটি ভিডিওর সাইজ । এরি অনুপাতকে রেজল্যুশন (Resolution) বলা হয় । রেজল্যুশন এবং সাইজের মধ্যে একটু পার্থক্য আছে । একটি ভিডিওর শুধু সাইজ নয় একটি অনুপাতও (Proportion) আছে । উপরের ছবিতে দেখতেই পাচ্ছেন । পার্থক্যটা হচ্ছে, রেজল্যুশন হিসাব করা হয় উলম্ব এবং অনুভূমিক বরাবর পিক্সেলের মোট গড়ের উপর । একটি আদর্শ ভিডিওতে সবসময় উলম্ব বরাবর পিক্সেল সংখ্যা কম থাকে । ভিডিও অনুপাত মাপার গাণিতিক একটি সূত্র আছে । সূত্রটি হলঃ
4n : 3n [n=Integer Number]

সচরাচর রেজল্যুশনের হিসাবটা ধরা হয় তার উলম্ব বরাবর যতগুলো পিক্সেল আছে তার উপর। যেমন ধরুন, একটি ভিডিওর সাইজ :
Horizontally : 1920 pixel
Vertically : 1080 pixel
তাহলে এর রেজল্যুশন বলা যাবে 1080 পিক্সেল বা সংক্ষেপে 1080p । স্ট্যান্ডার্ড তথ্য অনুযায়ী ভার্টিক্যাল বরাবর সর্বোনিম্ন ৭২০টি পিক্সেল থাকলে তাকে উচ্চ মাত্রার (HD=High Defination) ভিডিও বলা হয় ।
এছাড়াও ভিডিও নিয়ে আরো অনেক আলোচ্চ বিষয় আছে । যেগুলো ভিডিও এডিটিং চাপ্টারে বিস্তৃত আলোচনা করা হবে ।
ধন্যবাদ সবাইকে ।




কোন মন্তব্য নেই:

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন